বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১২ সেপ্টেম্বর ১৯৮৫
গল্প/কবিতা: ১৫টি

সমন্বিত স্কোর

৪.০৫

বিচারক স্কোরঃ ২.৫৯ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৪৬ / ৩.০

একটি ভালবাসার চিঠি-২

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নভেম্বর ২০১৬

এক কিশোরের জ্বলসে যাওয়া হৃদয়

ঘৃণা সেপ্টেম্বর ২০১৬

আসছে বর্ষায়

দুঃখ অক্টোবর ২০১৫

কবিতা - প্রতীক্ষা (অক্টোবর ২০১৬)

মোট ভোট ১৭ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.০৫ কথোপকথন

কবি এবং হিমু
comment ১০  favorite ০  import_contacts ১২৭
বিশাল কিছু পাবার আশায় কিশোরী মত্ত ছিল!
এ তোমার বোঝার ভূল হে যুবক।
যদি তাই হবে,তাহলে আমার কড়াঘাতে দেবালয় কেঁপে উঠলেও
কেন তোমার হৃদয় জমিনে একটু জায়গা খুঁজে পাই নি?
আমি বড্ড হেয়ালী ছিলাম গো,
কিশোর বয়স,হেয়ালীপনা তো আমাকেই মানায়।
নাকি তোমার মতো বৃদ্ধ কে?
আমি ও তো কিশোর ছিলাম,
কই তোমার মতো তো হেয়ালীপনা আমাকে পায়নি।
নারী নাকি পুরুষের চোঁখের ভাষা পড়তে পারে।
তবে,তবে তুমি কি দেখোনি আমার চোঁখ,
পড়তে পারোনি সে চোঁখের ভাষা!!!
কি জানি বাপু হয়তো পেরেছি,হয়তো বা না।
হেয়ালী করো না আমার সাথে।
হা হা হা,যুবক আমার রাগ করলে নাকি গো?
কত্তোবার বলবো,হেয়ালীপনায় মত্ত ছিলাম বলেই তো
তোমার চোঁখের ভাষা পড়তে পারি নি।

আজ তো যুবতী। আজও কি পারো না?
এখন? পারি বৈকি,পারবো না কেন।
এক ছেলের মা আমি গো,এখন কি আর
হেয়ালীপনা মানায়?
তুমি ও তো এখন দু'ছেলের বাবা।
এ বয়সে এসে হেয়ালীপনায় মত্ত হলে নাকি?
নাকি নিজেকে বৃদ্ধ মানতে নারাজ।
আমাকে দেখ,আমাকে দেখে শেখো।
আমি এখন এক ছেলের মা,
তোমার ই মতো কোন এক পুরুষের বাহুডোরে
আমার রাত্রি কাটে।
দখিনের জানালায় উঁকি দিয়ে দেখতেও
আজ আমার বড্ড ভয়।

হে কিশোরী,জানি তুমি অনেকটা বদলে গিয়েছ
হয়তো বা বদলে গিয়েছি আমিও।
তোমার ই মতো কোন এক নারীর ঠোঁটে,
আমার রাতগুলো ভোর হয়।
তারপর ও কোন এক কল্পলোকে আমার অবাধ বিচরণ।
প্রতীক্ষায় থেকে থেকে আমার কাঁদামাখা পথ
আজ পিচ ঢালা।তারপর ও আমি হাঁটতে চাই,
সেই পিচ ঢালা পথে কিছুটা পথ।
হোক সেটা ক্লান্ত দূপুর নয়ত বা অলস বিকেল।
হাত রেখে কিশোরীর হাতে,পাশাপাশি।
হে কিশোরী,তোমার হাতের স্পর্শে
যুবকের হৃদয় আন্দোলিত হোক,
তোমার হেয়ালীপনায়,বেখেয়ালি হোক
কৈশোর থেকে বৃদ্ধ হওয়া কোন এক যুবক।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন