বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৭ আগস্ট ১৯৭৭
গল্প/কবিতা: ৭৫টি

সমন্বিত স্কোর

৩.০২

বিচারক স্কোরঃ ১.৫২ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৫ / ৩.০

চিঠির গল্প.........

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

ভালবাসার কাব্য.....

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

স্বপ্নগুলো সেই রয়ে গেলো অধরা.....

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

ব্যথা (জানুয়ারী ২০১৫)

মোট ভোট ২৫ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.০২ জীবন অনুগল্প

এই মেঘ এই রোদ্দুর
comment ১৬  favorite ১  import_contacts ২,৪৭৬
আজকাল ঘুনে ধরা মন অকারণেই অস্থির থাকে। সুন্দর পৃথিবীর সব কিছুই অসুন্দর লাগে। ভাল লাগার অনুভুতি কখনো কিঞ্চিতের জন্য ফিরে আসে। আবার মুহুর্তেই চলে যায়। তখন প্রভাতের নীলে চোখ রাখলে মনে বেজে উঠে হাজার সুরের অনুরণন। যত আঘাত, যত কষ্ট, হৃদের রক্তক্ষরণ, কথার আঘাতের দগদগে ঘা নিমেষেই উড়ে ভোরের নীলে চলে যায়। চোখের আকাশে রঙধনু উঠে.... হাজার রং ছড়ায়ে... বৃষ্টি ঝরে রংধনু রংয়ের। বৃষ্টির ফোঁটা সবুজ ঘাসে মুক্তো হয়, আংগুলের ডগায় মুক্তো তুলে নিয়ে কপালে টিপ এঁকে দেই। দুটি নীল ফড়িং উন্মাতাল উল্লাসে সবুজ ঘাসে উড়ে বেড়াচ্ছে। ভালবাসার পরশ বুলাচ্ছে একে অপরে। লেজ উঁচিয়ে বুলবুলি এ ডাল ও ডালে কখনো সবুজ ঘাসের গালিচায় নেমে ক্ষিদে মিটিয়ে উড়ে বসছে ডালে। প্রজাপতি, ফড়িং, বুলবুলি আমার সখি হয়।

শুন, তোমরা প্রতিটি সকালে এমন করেই এসো আমার আঙ্গিনায়, ছড়িয়ে দেব তোমাদের জন্য ভালবাসার শস্যকণা। মুগ্ধ চোখে আনন্দ কুঁড়িয়ে নিব আঁচল ভরে।

আমার রাত কখনো হয় না নির্ঘুম। হতাশা আসে সব দিনের আলোয়। হিসাব বুঝি তাই মেলে না। হিসাব আমি বুঝি না। এত চুলচেরা বিশ্লেষন করি না হতাশার। কারণ এসবের সমাধান নেই। ভুলে যাই সব। কখনো দুপুরকে বানাই প্রভাত... প্রভাতের স্নিগ্ধতায় নিজেকে বিলিয়ে দেই। কোন তীক্ষ্ণ আলোর অপেক্ষায় থাকি না। আলো নিজে তৈরী করে নেই মনের মাঝারে....চোখ খোলা রাখি অহর্নিশ...আলো যেন নিভে না যায় কভু। এই মেঘ জমে আমার মনের আকাশে আবার রোদ্দুরের ঝলমলে ছোঁয়ায় মেঘ যায় কেটে। তাই আমি হয়ে যাই এই মেঘ এই রোদ্দুর।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন