বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৫ জুলাই ১৯৮১
গল্প/কবিতা: ১৮টি

সমন্বিত স্কোর

৩.০৫

বিচারক স্কোরঃ ১.৬৮ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৩৭ / ৩.০

তোরাই মানুষ বেঁচে থাক

অস্থিরতা জানুয়ারী ২০১৬

শীতের বর্বরতা

শীত / ঠাণ্ডা ডিসেম্বর ২০১৫

বেওয়ারিশ কবিতা

দুঃখ অক্টোবর ২০১৫

শিক্ষা / শিক্ষক (নভেম্বর ২০১৫)

মোট ভোট ১৬ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.০৫ বর্ণনীল পথিক

আলমগীর সরকার লিটন
comment ৮  favorite ১  import_contacts ২৯৮
ঘন সবুজ গ্রাম ইটভাঙ্গা রাস্তা বেলগাছতল দিয়ে রোজ
ইস্কুলে আসতো,সেতো আমাদের পাঠশালার বন্ধু মাইনুল !
আজ প্রতাবর্তন ঘটেছে নতুনত্ব ফুল ফুটেছে বর্ণনীল-
সোনালী স্মৃতির হাজার লক্ষকোটি গুনছি কোষ মাইল।
এখন কেন জানি, বিদ্বেষী ভূতের ভর করেছে আসন,
ধূলিমাখা পিচরাঙা নীল সাজ শুধু পথের বাঁকে অয়ন-
বড় হওয়ার চঞ্চলতা স্বপ্নচূড়ায় করছে শিহরণ
শিশুশিক্ষা আর ধারাপাতটা ডিজিটালে যে শাসন।

আম,কাঁঠাল,পাকার মতো মাইনুল অংকে ছিল পাকাপক্ত-
শিখতে গিয়ে হয়েছি কাঁচাশক্ত,ধুমধারাখা মুড়িমাকা খেয়েছি অন্ত ,
গনতন্ত্রের সংঙ্গা না পেয়ে সাইদ স্যারের কঞ্চিচাপটে গা ফেঁটে রক্ত
স্যার রাগেবেগে চলে গেল,উঠল বেজে ছুটির ঘন্টা যেন মুক্ত;

গা শুধরাতে শুধরাতে মাইনুল বলতো !প্রজন্ম জেনে হবে ক্ষান্ত;
বেলগাছ ইটভাঙ্গা রাস্তা মেঠোপথ পাবে না আর খুঁজে ঐ প্রান্ত-
ঠিক হয়েছে বিবর্ণ আজ,ইস্কুল মাঠ সবিই আছে ঠিকঠাক,
শুধু শশান আর্তনাদ দেহ গায়ে নিশ্বাস হয়েছে মৃত -মৃত ।
বিকেলে ইস্কুল মাঠে ফুটবল,ক্রিকেট হুরহামেসায় খেলছে-
ইলিয়েশ স্যারের বাঁশির আওয়াজের প্রতিধ্বনি মাঠতরঙ্গে বাজছে,
প্রাইমারি হাইস্কুল মাঠের দুর্বাঘাস কেল্লাঘাস নতুন রুপে বর্ন দুলছে
শুধ চরণধূলি মেঘে উড়েছে মেঘের দেবতা দিবে জানি শান্তি আবাসে।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন