বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৪ ফেব্রুয়ারী ১৯৮২
গল্প/কবিতা: ১১টি

সমন্বিত স্কোর

২.৬১

বিচারক স্কোরঃ ১.১৭ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৪৪ / ৩.০

প্রণয়-প্রণালী

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

এক পৃথিবী গল্প

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

বাস্তবতার বাস্তবতা

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

কবিতা - মমতা (মে ২০১৬)

মোট ভোট ১২ প্রাপ্ত পয়েন্ট ২.৬১ তৃতীয় মৃত্যুর পর

আহমাদ সা-জিদ (উদাসকবি)
comment ১১  favorite ১  import_contacts ১৮৭
তৃতীয় মৃত্যুর পর!
ক্ষুধা, তৃষ্ণা, স্পৃহা, সংকোচ; সংশয়-
আশা, স্বপ্ন-সাধ, জর-জড়তা-ভয়
চাহিদা, কামনা, বাসনা সব করেছি জয়!
চিত্তের (Heart) বৃত্ত ত্যাগ করে, হয়েছি অমর!!
তৃতীয় মৃত্যুটা ছিল আকস্মিক ও ভয়ংকর
যখন সহকর্মী শুধায়, অর্থ-কড়ি, গাড়ি, বাড়ি-ঘর?
বললাম, ওসবের কী এমন দরকার?
জীবনে মূল্যবোধ আর চরিত্রই সার!
জৈবিক প্রয়োজনে সামান্য অর্থ, বেশিটাই অহঙ্কার।
মালিক বললেন কৌতুক করে (ridicule), অহঙ্কারই ধন!
বললাম, অর্থের নয়; চরিত্রের অহমটাই প্রয়োজন
মিছে সব, মূল্যহীন! তবুও তাই ব্যস্ততায় সারাক্ষণ!
মালিক ও সহকর্মী বললেন, তোমার কী আছে?
ওদের অট্টহাসিতে পাতা ঝরে গাছে
বললাম, শিক্ষা, সংস্কার, চরিত্রের সততা আমার কাছে।
কী মূল্য(cost) ওসবের? যদি না থাকে অর্থ!
ওরা বলে অট্টহাসিতে; তোমার জীবনটাই ব্যর্থ
কে শিখে বলো কাগুজে বিদ্যা, বিনা স্বার্থ?
তুমি তো নিয়মের বাইরে, খন্ডিত স্বর-
ভুগবে(suffer) নিজে, ভোগাবে সবাইকে জীবন ভর
কৌতুক(fun ) করে বলে, তুমি তো নিয়মের উর্দ্ধে উঠে হয়েছ অমর।
জীবনের অসাড়তা পেলাম তখনই আমার, খেলাচ্ছলে
তৃতীয় মৃত্যু হল আমার ধরিত্রী তলে
জীবনের মূল্য পাব, কতবার মৃত্যু হলে?
***********************
এখন আনন্দে হাসি না
দু:খ-কষ্টে কাঁদি না
হাওয়া আর জলে ভাসি না!
অনুভূতিহীন, নির্জীব (Lifeless), স্পন্দনহীন (languorous) যেন এক আয়নাঘর!
সকলেই আপনার, নিজে শুধু পর।
চারদিক থেকে মনুষ্যগুলো চেঁচিয়ে বলে, তুই অমর (eternal )
***********************
প্রথম মৃত‌্যুটা ছিল অনাকাঙ্খিত, বাস্তবতা শেখার
শিক্ষা জীবন পেরোতেই বুঝলাম, জীবনটা একার
দুই বছর বেকার; বুঝেছি তখন- শিক্ষা-সনদগুলোই(certificate) বেকার!
সুপারিশ(recommendation ),কিংবা ভুয়োদর্শন(experience)বিজ্ঞতা
যে সব ছিল না "পাঠ্য বইয়ের পাতা"
বুঝলাম এখন- কী শিখেছি সব ব্যঙের ছাতা!!
দ্বিতীয় মৃত্যুটা হল পরবাসের পর-
শিক্ষা-চরিত্র-সংস্কারের সকল সনদ দিয়ে কবর
চাকুরী নিলাম কাঁচাবাজারে, ইতালির রোম শহর!
হাতে ঝাড়ু দিয়ে-
বললাম, ভূমি তুমি দ্বিধা হও আমায় নিয়ে
ধ্বনীতে ধ্বনীতে বাজল লড়াই, আকাশ-পাতাল কাঁপিয়ে!!
**************************
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন