বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২ জুন ১৯৮৬
গল্প/কবিতা: ৫টি

সমন্বিত স্কোর

৩.৬২

বিচারক স্কোরঃ ২.২২ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৪ / ৩.০

মহাজাগতিক রাতের পদ্ম

রাত মে ২০১৪

বিকৃত ভাগাড়

বাংলার রূপ এপ্রিল ২০১৪

লাল কোঁচ

বাংলার রূপ এপ্রিল ২০১৪

উচ্ছ্বাস (জুন ২০১৪)

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.৬২ ছুটি

হলুদ খাম
comment ৯  favorite ০  import_contacts ৭৪৫
শত বছরের ছুটির ঘণ্টা বেজেছে
হেঁয়ালি পাখির ডানায় ভর করে
মনে আজ এসেছে উচ্ছ্বাসের জোয়ার ।
তাই তো ......

আজ এক নির্ঘুম রাতে অপসংস্কৃতির বিকৃত ভাগাড়ে
জাফরানি পত্র পল্লবে বেড়ে ওঠা হিজল গাছের ডালে
মায়াবতী পেত্নীর খোপার
জবাফুল হয়েছি হুতুম পেঁচার মত ।
শীতল জ্যোৎস্নার অঙ্গে কে যেন মাখিয়ে দিয়েছে
নাম না জানা দুর্গন্ধময় ফুলের নির্জাস !
অদূরে জোনাকিদের পাখনার আলো কেড়ে
কৃতিম আলোর পশরা সাজিয়েছে পিচাশের দল ।
ঝিঁঝিঁ পোকাদের সুর কেড়ে নিয়েছে নাইট গার্ড
আধুনিক যন্ত্রের হুংকারে আজ শেয়ালের কান্না বন্দ
আমার পাশের ডালে বসে খুব চেনা ডাহুক পাখি
পেত্নীর কাছে করে সুরের প্রার্থনা ।

কালো বেড়ালের চোখের সবুজ আলোর চমকানি
নিশাচরদের ডানা ঝাপটানোর অবরোধ ঘোষণা করে
মুখে থাকা ফল গুলো চিবানোর সাহস হয়না তাদের
আমার দিকে ফ্যাল ফ্যাল দৃষ্টিতে
চেয়ে থাকে অসহায়ের মত ।
আমিও অসহায়ের মত দেখলাম
গ্রাম বাংলার রঙ রুপ ঐতিহ্য সংস্কৃতির ফুল চন্দনে
চুনকালি মাখিয়ে অসুরের দল কেড়ে নিলো
পার্বণের তেপান্তরের রাতজাগা মহা উৎসবের
তবলা ডুগি , ঢাক ঢোল, মাদল ও ডাকাতিয়া বাঁশি ।

বেশুর প্রতিধ্বনি , বিষাক্ত বাতাস আর
উই ধরা ঢেঁকি, বাঁশ বেত , সোনালী আঁশের অলংকার পোড়ানর কালো ধোঁয়া ও মানসিক আঘাতে
নিশি পদ্ম, পুষ্প চোখ মেলেই
মৃত্যুর প্রহর গুনছে ।
আজকে কলঙ্কিত বাংলার রূপ দেখে
শতশত নক্ষত্র লজ্জায় , ঘেন্নায় ঝড়ে পড়ছে
শিউলি ফুলের মত ।

শতবাধার পড়েও নিবু নিবু পিদিম জ্বেলে
মাছ ধরছে জেলেরা
জেলেদের চুপি চুপি গান শোনাচ্ছে
মাছ রাঙা , সারস , পানকড়ি বক
নানা জাতের মাছ পাগল পক্ষী -
যদিও তারা জানে নদী দখলকারী শকুনের
বুলেটের আঘাতে অপমৃত্যু অস্বাভাবিক কিছু নয় ।

ধর্মহীন , মানবতাহীন , দেশদ্রোহী , অমানুষদের
বিকৃত ভাগাড়ে খুঁজে ফিরি আমার আনন্দউদ্যানের
বৃক্ষরাজি , ভাঙা একতারা , সম্পর্কের ছায়ানট
স্বপ্নময় মহাকালের নুড়ি পাথরের টুকরো গুলো ।

বিকৃত ভাগাড়ে আমি খুঁজে ফিরি আমার
রক্তে মিশেথাকা নীল পদ্মের পাপড়ির মত
সোনালী অতীত -
যেখানে সুচ সুতোর গাঁথা বকুল ফুলের মালিকায়
বাংলার রূপের নকশী কাঁথার কারুকাজ
উপলব্ধি করছে উচ্ছ্বাস ।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন