বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৬ এপ্রিল ২০১৯
গল্প/কবিতা: ২৩টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৩১

বিচারক স্কোরঃ ২.৭১ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৬ / ৩.০

রমাকান্ত নামা--স্মৃতির প্রশাখা

কোমলতা জুলাই ২০১৫

স্মৃতি সততই দুখের

ব্যথা জানুয়ারী ২০১৫

রাতের বন্ধু

রাত মে ২০১৪

ঘৃনা (আগস্ট ২০১৫)

মোট ভোট ১৬ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৩১ নষ্ট মানুষ

তাপসকিরণ রায়
comment ১০  favorite ১  import_contacts ৯২৬
নষ্ট মানুষ
তাপসকিরণ রায়


নষ্ট মানুষের সংজ্ঞা জানতে চেয়েছিলাম,
তোমাদের ব্যঙ্গ হাসিতে মানুষটার আদলে জমে ছিল ঘাম,
সমস্ত টুকরো টুকরো সৃজন
পলেস্তারার মত খসে যাচ্ছিল তার দেওয়াল শরীর।
নষ্ট মানুষটা ঘৃণার পথে হেঁটে চলেছে...
বক্র দৃষ্টিতে ক্রমশ ভেঙে পড়া তার অন্তর্মুখ!
এক চরিত্রহীন চেহারায় সে ক্রমশ বদলে যাচ্ছিল।

ঘৃণিত সে মানুষটা ধোঁয়ার মাঝে হেঁটে যাচ্ছে,
তোমাদের জানালা কপাট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ,
অন্ধকার তার কাছে স্বাভাবিক ছিল,
ব্যর্থতা ছিল তার নষ্ট মানস।
আজের এ ধৃষ্ট অপরাধী মন তার অন্য জন্মান্তর।

সেও এক বালকবেলা পেরিয়ে এসেছে,
তার পায়ের নিচেও ছিল সবুজ ঘাস,
ফুরফুরে বাতাস তার মনেও ধরাত পলাশী রঙ,
আর এমনি করে বাসন্তিক ভালবাসায়
তার মনের মাঝে জেগে উঠত এক গোলাপি প্রেমিকা।
বারবার সে দলিত হয়েছে গোলাপ কাঁটায়।
তার আঁচড় আঘাতের ক্ষত
একদিন দগদগে হয়ে ফুটে উঠলো তার বুকের মাঝে।
বীতস্পৃহ ভাবনাগুলি মথিত হল,
সবার ঘৃণা তাকে ঠেলে দিল আরও দূরত্বে।
তখন তার পাশে শীতল ছায়া নেই, ভালবাসার হাত নেই।

এখন সে নষ্ট প্রেমিক।
তাকে বসন্ত ছেড়ে গেছে, বর্ষা তাকে আর ভিজাতে পারে নি,
গ্রীষ্ম দাবদাহে তার ক্লিষ্ট শরীর।
ওর গালে কিছু গিঁট জন্মাল,
চেহারা এখন তার ঠিক, ঠিক যেন এক নষ্ট মানুষ !
স্খলন চরিত্রের এক পরত আদল নিয়ে সে হেঁটে চলেছে...
গায়ে তার ঘৃণিত ঘা।
চোখ ফিরিয়ে পাশ কাটিয়ে সরে যাচ্ছে তার পরিচিত মানুষগুলি।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • কবি এবং হিমু
    কবি এবং হিমু এক জন মানুষের নষ্ট হয়ে উঠার গল্প বলে মনে হলো.আমরা সবাই তাকে ঘৃনাই করি কিন্তু জানতে চাই না তার পিছনে লুকিয়ে থাকা গল্প টা..ভালো লাগলো
    প্রত্যুত্তর . ২০ আগস্ট, ২০১৫
  • তৌহিদুর  রহমান
    তৌহিদুর রহমান কি যে লিখব বুঝে উঠতে পারছি না...অনেক ভালো লাগলো...ভোট দিয়ে গেলাম...পাতায় আমন্ত্রন রইলো...আমার কবিতা ভালো লাগলে ভোট করুন...প্লিজ...
    প্রত্যুত্তর . ২০ আগস্ট, ২০১৫
  • তানি হক
    তানি হক অসম্ভব রকম ভালো লেগেছে ... শুভেচ্ছা জানাই প্রিয় কবিকে।
    প্রত্যুত্তর . ২৬ আগস্ট, ২০১৫
    • তাপসকিরণ রায় এখানে ভাল মন্দের বিশেষ একটা ভেদাভেদ আছে বলে মনে হয় না--বিচারকদের বোধ শকতি গুলি অবহেলিত হচ্ছে। লেখা পড়ে বিচার করার মানসিকতা তাঁদের মধ্যে আছে বলে আমার মনে হয় না।আমার ত মনে হয় আদৌ উপযুক্ত বিচারকদের এখানে আনা হয় কি না সন্দেহ। একেবারে দায় সারা কাজ চলছে এখানে। ব্যাপারটা একটু নজর দিলেই যে কেউ বুঝতে পারবেন। এখানকার এডমিনরা সিংহাসনে বিরাজমান।
      প্রত্যুত্তর . ২৭ আগস্ট, ২০১৫