বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১ ফেব্রুয়ারী ১৯৭৩
গল্প/কবিতা: ৬২টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৬২

বিচারক স্কোরঃ ২.৯২ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৭ / ৩.০

ডাম্বুলার প্রেম

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

নীরবতা

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

রসায়নের কথা

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

রাত (মে ২০১৪)

মোট ভোট ৩৪ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৬২ দুটি কবিতা

জসীম উদ্দীন মুহম্মদ
comment ২৭  favorite ০  import_contacts ৯৩৯
এক
যেমন দাঁড়িয়েছিলাম আঁধারের গা ঘেঁষে, এখনো আছি তেমনি
দুহাজার বছর আগের পরিত্যাক্ত দালান ঘরে
আমার সাথে আছে ছায়া শরীর, অন্ধকারের প্রেতাত্মা
স্যাঁতস্যাঁতে মেঝে, শ্যাওলা ধরা ইট পাথর
উইপোকা বোধ আর অফুরন্ত একঘেয়ে যাযাবর বেলা!
সব ঝুঁট হ্যাঁয়, সব ঝুঁট হ্যাঁয়, হাঁকতে হাঁকতে
মাঝে মধ্যে কে যেন বিজলি চমক এঁকে দিয়ে যায়!
ধূপছায়া সিন্ধু লাশের গায় !
কেঁপে উঠে দুঃস্বপ্নের চোরাবালি, মৃত রাত
কেউ বলতে পারে না
কোনদিন, কখন, আবার জাগবে আলোর প্রভাত!
কামুক মন
অন্ধকারের রোদেলা স্পর্শে কখনও জেগে উঠে, আড়মোড়া ভাঙে
মাতাল পশুর মত
অতঃপর কলির নামতার পাঠ মুখস্ত করে বেভুলা রাত!

দুই
কালের কলসে ভরে রেখেছিলাম গন্ধ মাখা চাঁদ
ডাহুক ডাকা রাতে,
বাচাল নদী আজও পারেনি আমাকে এতোটুকু ছুঁয়ে নিতে !
এই অবেলায় তাই গেয়ে যাই
বেলা শেষের গান; উটের জকির মত
মাজরা পোকার ক্ষুধার্ত পাকস্থলীতে জমাট বাঁধা
ধানের শিষের মত
বেভুলে করেছি ভুল
এখন প্রত্যাশার পারদে গাঁথি সুচাগ্র মেদেনী চুল
আঁধারের উপর আঁধার উছলিয়ে পড়ে আমার খোঁজ নিতে !
গ্রীষ্মের খরতাপ দেখায় তিরিক্কি মেজাজ
তবু দুচোখে রাঙতার কাজল মেখে
এখনও ঠায় দাঁড়িয়ে আছি পথের বাঁকে !
যদিচ আধলা চাঁদের গন্ধ পাই
যদিচ উল্টো স্রোতে হঠাত রাত ভেসে যায় !!
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন