বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
গল্প/কবিতা: ১০টি

পথ ফুরায় না

অন্ধকার জুন ২০১৩

মেঘবেলায় আমরা ক'জন

মুক্তিযোদ্ধা ডিসেম্বর ২০১২

আপাকু পিথ্রীঃ গরু এবং একজন আলু

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নভেম্বর ২০১২

শাড়ী (সেপ্টেম্বর ২০১২)

ধবল শাড়ি ও মোহন বাঁশি

সিয়াম সোহানূর
comment ৪৯  favorite ১  import_contacts ৫৭৭
চোখে চোখ পড়ে সহসা
লাজরাঙা হয় চাঁদমুখ
কিছু বলতে যেয়ে কাঁপে ঠোঁট
অলক্ষ্যে ব্যথা লুকানোর ব্যর্থ প্রয়াসে
আঁচল টেনে বুকের দুঃখটুকু লুকোয় আরবার ।
দিনমণি তাপ দিয়ে যায় এ বেলায়
অতঃপর দীঘল রাত নামে একাকী বসন্তে ।
তাঁরারা মিটিমিটি হাসে বিষণ্ণ বাতাসে
উঁকি দেয় ফেউ জানালার ফাঁকে
আলো আঁধারের খেলায় বহে সময়ের চাকা।
বাঁশির মত নাক , নাকফুল নেই
ধবল শাড়িতে সোনায় মোড়ানো দেহখানি
চাদর বেয়ে ঝুলে আছে অজানুলম্বিত কেশ
হারানোর ব্যথা দীর্ঘশ্বাস হয় ক্ষণে ক্ষণে
নিশিত রাতি তুরঙ্গ খুলি চোখের জলে
প্রসাধন কথা কয় স্মৃতি আর হতাশার কানাঘুষায়!
আর জরি-জড়ানো লাল শাড়ি
বিদ্রুপে তনু মনে;
আমার ঘুমতাড়ানো ছায়া তুলে নেয় বাঁশি-
কাছে এসো, শূন্য বুকে নাও যৌবন-নিঃশ্বাস
সময়ের চোখে থাকুক মোটা গ্লাস
পাশাপাশি জাগুক হিয়া
বেঁচে থাকুক ভালবাসা, বিশ্বাস ।

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন