বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
গল্প/কবিতা: ১৮টি

যাত্রা

প্রায়শ্চিত্ত জুন ২০১৬

কাদবার জন্য আমন্ত্রণ

উপলব্ধি এপ্রিল ২০১৬

স্বাধীন পা পরাধীন হৃদয়

ত্যাগ মার্চ ২০১৬

কবিতা - প্রেম (ফেব্রুয়ারী ২০১৭)

সুলক্ষী সেতু

রুহুল আমীন রাজু
comment ০  favorite ০  import_contacts ২৫
সেদিন আকাশ ছিলো মেঘলা, ছিলো ইলশে গুড়ি বৃষ্টি
অচেনা এক গ্রামের চেনা নদীর তীরে আমার সাথে সুলক্ষী
ভেজা ঘাসে বসে স্রোতধারা জল, দূর আকাশে শালিকের ডানা ঝাঁপটানো..
আমরা ভিজে একাকার.. কথায় কথায় বেলা গড়িয়ে যায়
তবুও যেনো আরো কি কথা বাকী রয়ে যায়.......
হঠাৎ সুলক্ষীর চোখ পড়লো পাশের ছোট্ট একটি ডোবার দিকে
রাঙ্গা পায়ের জল ভাঙ্গার শব্দে কিশোরীর দূরন্তপনা.....
আর সাথে এক বৃদ্বার আর্তনাদ !
সুলক্ষী বলে উঠলো- আহা এখানে যদি একটি সেতু হতো....
আমি কিছুটা অবাক সুরে বললাম, তিনটা বাড়ীর জন্যে সেতু...?
আমার সাথে সুর মিলিয়ে সেও বললো- হ্যাঁ, তাইতো.....
ফের ও চিৎকার করে বলে উঠলো- কেন হতে পারে না ?
ওরা ওতো মানুষ............!!
ওর এই দীর্ঘনিঃশ্বস নিয়ে’ই যার যার নীড়ে ফিরে আসি।
পরে এইতো সেদিন সেই গ্রামের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলাম একা
আমি অবাক !! কিছুতেই বিশ^াস করতে পারছি না ....
ওখানে সত্যি সত্যি’ই ছোট একটি সেতু তৈরী হয়েছে,
আমি আনন্দাủতে মনে মনে সেতুটির নাম দিলাম- ’সুলক্ষী সেতু’ ।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন