বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২১ ফেব্রুয়ারী ১৯৯৬
গল্প/কবিতা: ১৫টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

১১

জলনৌকো

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

ঈদের শাড়ী

শাড়ী সেপ্টেম্বর ২০১২

আবছা আবছা বাবার স্মৃতি

বাবা জুন ২০১২

স্বাধীনতা (মার্চ ২০১১)

নতুন ভোর

জাবেদ ভূঁইয়া
comment ৪৬  favorite ৭  import_contacts ৮২৮
এক
রাতটা বেশ কালো আর অমানিশায় ভরা ।চারদিকে ঝি ঝি পোকার একটানা ঝি ...ঝি ।এই অন্ধকার ভেদ করে আমরা এগিয়ে চলেছি ।এগিয়ে চলেছি এক সম্ভাবনার দ্বার প্রান্তে ।বিজয়ী হওয়ার জন্য ।নিজের দেশকে মুক্ত করার জন্য ।আমরা মুক্তিযোদ্ধা ।
আমাদের দলে এখন মুক্তিযোদ্ধা ৮ জন ।আরও বেশি ছিল ।মোট ছিল ১৩ জন ।বাকিরা অন্যদিক দিয়ে গেছে ।গেরিলা আক্রমণ শুধু একদিক দিয়েই করলে হয়না ।বিভিন্ন দিক দিয়েই করতে হয় ।দূরে আলো চোখে পড়ল অনেকগুলো ।
¤ওটাই পাকবাহিনীর ক্যাম্প ।
প্রায় ফিসফিসয়ে বলল একজন ।
তাঁর কথা হইত কারও কান অবধি পৌঁছলও না কিম্বা শুনেও কথা বলেনা ।আমি ছেলেটির দিকে তাকালাম ।অল্প বয়স ।চোখ দেখলাম ভেজা ।

¤অপারেশনের জন্য তৈরি হও ।
বললেন কমান্ডার ।
আমরা শেষ বারের একবার করে সবার দিকে তাকালাম ।সেই ছেলেটার দিকে তাকালাম ।এখন আর তার চোখ ভেজা নেই ।তবে কেমন যেন গোমরে আছে ।আমি তাঁর দিকে এগিয়ে গেলাম ।
¤মার জন্য মন খারাপ ?
ছেলেটি ফুঁপিয়ে কেঁদে উঠল ।
¤মা ..
একটা চিঠি আমার দিকে এগিয়ে দিল ।

দুই

আজ তুমুল যুদ্ধে পাকবাহিনীর ক্যাম্পটা উড়িয়ে দিয়ে সবাই ক্যাম্পে ফেরার জন্য তৈরি হলাম ।কমান্ডার নির্দেশ দিলেন গোলার ব্যাগগুলো ঠিকঠাক নিয়ে নিতে ।নতুন যুদ্ধে এসেছি তাই একটু সমস্যা হচ্ছে ।
¤ছার আমাগো দলের লোকদের লাশ ?
¤নদীতে ফেলে দাও ।
এছাড়া আর কোন উপায় নেই ।যেকোনো সময় আবার পাল্ট আক্রমণ হতে পারে ।
¤ভাইসব একটু ধরেন ।
পিছন থেকে কে যেন বলল ।একটা ছোকরা ছেলের লাশ টেনে নিতে গিয়ে হিমসিম খাচ্ছে ।দেখলাম সেই ছেলেটার লাশ ।

তিন
আজ ডিসেম্বরের ১০ তারিখ ।ছেলেটার দেয়া চিঠিটা পড়লাম ।শুধু পড়লাম বলে ভুল হবে ।পড়ে কাঁদলাম ও ।সত্যিই ছেলেটা বড় দুর্ভাগা ।

অবশেষে আমাদের দেশটা স্বাধীন হল ।স্বাধীন দেশের লাল সূর্যটা দেখলাম ।মনে হল শহিদদের রক্তে ওটা অমন রঞ্জিত ।কে জানে ঠিক কিনা ।
(এই গল্পের কাহিনী ,তারিখ ,চরিত্র সবকিছুই কাল্পনিক )
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন