বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৭ জানুয়ারী ১৯৯৩
গল্প/কবিতা: ৬টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বর্ণ

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

আলসেমির পুরস্কার

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নভেম্বর ২০১৬

ডিজিটাল ভালোবাসা

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নভেম্বর ২০১৬

গল্প - কি যেন একটা (জানুয়ারী ২০১৭)

মোট ভোট ভয়

রিনিয়া সুলতানা
comment ২  favorite ০  import_contacts ৫৬
ঘুটঘুটে অন্ধকারে গাছের মাথায় নিজেকে আবিষ্কার করল চান্দু।বংশের শেষ প্রদীপ বলে বাবা মা যাকে গাছের ডালটি ধরতে দিত না।সে আজ মস্ত বড় তাল গাছের মাথায়।একে তো রাত তার উপর গাছ।কি করবে ভেবে পাইনা।কাল রাতের কাহিনীটা মনে করার চেষ্টা করল।রাত ১১ টার দিকে মোড়ের দোকান থেকে আড্ডা শেষ বাসায় ফিরছিল।ফিরার পথে দেখল বট গাছ টায় কি যেন একটা ঝুলছে।চান্দু কে উদ্দেশ্য করে মেয়েলি কন্ঠে বলছিল আমাকে বাঁচাও।চান্দু বেচারা গাছে উঠতে পারেনা তার উপর রাত।ভয় ও পেয়েছিল খুব।চোখ বন্ধ করে সাঁঁই সাঁই করে হাটা ধরল।পিছন থেকে মেয়ে কন্ঠ টি চেচিয়ে বলল আমার কথা শুনলি না জেনে রাখ তোর কিছু একটা হবে।সামনে পুকুর পাড় দিয়ে যেতে যেতে পানির দিকে তাকিয়ে দেখল পানিতে মেয়ের মরা লাশ ভাসছে।লাশ থেকে ও ভেসে আসছে আওয়াজ তোর কিছু একটা হবে।পরদিন শুনলো পাশের বাসার সমিরের বউ গলায় ফাঁস দিয়ে মরছে।তবে কি ওই মেয়ের অভিশাপ এ আমি এই গাছের ডালে মনে মনে ভাবছে চান্দু।মাজা টা হাতড়ে দেখল কাল রাতে হুজুরের দেওয়া তাবিজ টা ঠিক ই আছে।হুজুরের কথা মত সোনা রুপার ভিজিয়ে গোসল করল তাতে ও কাজ দিল না।কি ভাবে নামবে এই গাছের মাথা থেকে।ঝাপ দিলে তো নির্ঘাত মৃত্যু।নিচের দিকে তাকিয়ে দেখল টিমটিম আলো হাতে এক মেয়ে আসছে।মনে একটু বল পেল।চেঁচিয়ে বলল এই কে যাও আমাকে বাঁচাও আমি গাছের উপরে।মেয়েটি মনে হল দাঁড়িয়ে গেল।আর বিকট শব্দে হেসে উঠল।মনে হল ৮.৯ মাত্রার ভূমিকম্প হল তালগাছটি কেঁপে উঠল।চোখ বন্ধ করে মনে মনে দুয়া পড়তে লাগল।শরীরের সব কয়টি লোম খাড়া হয়ে গেল।হঠাৎ মনে হল চোখের সামনে আলো আলো, চোখ খুলতেই যা দেখল তাতে পুরা শরীর বরফ।বিকট চেহারার মেয়েটি তার সামনে তাল পাতার ডালের উপর বসে, দু হাতে তাজা রক্ত।গলায় রশি বাঁধা।জিভ টা গলা অবধি ঝুলে আছে চোখটা রক্ত বর্ণ।চোখ দিয়ে আলো বের হচ্ছে।মেয়েটি বিকট কন্ঠে বলছে আমকে বাঁচালি না তো দেখ তোকে কে বাঁচায়।মেয়েটি তার রক্ত মাখা হাত টা দিয়ে চান্দুর গলা চেপে ধরল।চান্দু চিৎকার দিয়ে উঠল না.....আ..আ।পাশের ঘর থেকে মা বাবা ছুটে এসে বলল কিরে চান্দু কি হল আবার।চান্দুর ঘুম ভেংগে গেল।এক গ্লাস পানি খেয়ে বলল যাক বাবা কিছু একটা তো হল না।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন