বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১ মার্চ ১৯৮৯
গল্প/কবিতা: ১০টি

না, আমার বলার কিছুই নেই !

ঘৃণা সেপ্টেম্বর ২০১৬

আসমানি পক্ষপাতিত্ব

ঘৃণা সেপ্টেম্বর ২০১৬

তীরের আলো জলে জ্বলে

এ কেমন প্রেম? আগস্ট ২০১৬

কবিতা - প্রাপ্তি (জুন ২০১৬)

হিসাবি সিদ্ধান্ত

ফেরদৌস আলম
comment ১৮  favorite ১  import_contacts ১৯৭
এত সহজ নয়, শেষ পথটুকু শেষ হবার আগেই,
গুপ্তচর কিছু নিঃশব্দ তরঙ্গের ফিরে যাওয়া পর্যন্ত,
পড়ন্ত বিকেলে চটজলদি খুশি কিংবা টুকরো বেদনার
ঘণ্টা-ধ্বনির অবাধ্য হয়ে, মিলনের তীব্র ব্যাকুলতায়,
উর্ধ্বমূখী লালিমায় মিশে যাওয়ার আগেই বলে ফেলা-
আমি আসলেই কী পেলাম?

আমার জানালা গলে আসা প্রতিদিনের চোরা সুখপাখিগুলো
কিছুটা মেকি তো বটেই, কিছুটা পোষ-মানানো,
কিছুটা জোরাজুরির ফসল! কারোরই দায় নেই, দায়!
তবুও পুকুরের কালো জলে, মধ্য-দুপুরে তাদের অযথায়
ডানা-ঝাপ্টানো স্নান দেখে মনে হয়-
পৃথিবীটা একটা রঙ্গমঞ্চ, আর আমরা সবাই অভিনেতা!

যে ছাদের কিনার ঘেষে আমি বহুদূর দেখি, প্রান্তে যার
শুন্যতা ভরে রাখে হাজার বছরের আনমনা নিসঙ্গতার এক মহাপথ,
সেটি তো ছাদ নয়, নিজেকে বিকিয়ে দেওয়ার অদ্ভুত মরিচিকার ফাঁদ!
তবুও মিথ্যে মিথ্যে অপেক্ষা, কখনো ছোটাছুটি, কখনো ছল, ছলা-কলা,
নিজের সঙ্গেই নিজের বাহাদুরি দেখিয়ে প্রতারণা!
আমি আসলেই কী পেলাম – তা তো এক্ষুণি আসলেই বলবো না!
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন