বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৪ আগস্ট ১৯৮২
গল্প/কবিতা: ১০টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

১০

তুমি আমি আজ মুখোমুখি

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

বসন্তের নির্ঘুম রাত ও নীল মুনিয়া

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

কুমড়ো ডগায় বিষাদ নামে

ঘৃণা সেপ্টেম্বর ২০১৬

কবিতা - প্রতীক্ষা (অক্টোবর ২০১৬)

মোট ভোট ১০ গহীনে সাঁঝের বাতি

তানজিলা ইয়াসমিন
comment ৭  favorite ০  import_contacts ১১৭
নষ্ট সময়ের কষ্টের নাম প্রতীক্ষা, আর
প্রতীক্ষা মানে, না পাওয়ার বেদনার নাম
জগতের সমস্ত প্রাণীই কোন না কোন
প্রতীক্ষা প্রহর কাটে হতাশায়-প্রত্যাশায় ।
সন্তান প্রসবের বেদনায় নীলাভ বদনে মা
নবজাতকের জন্মের প্রতীক্ষা করে,
ক্রন্দনরত শিশু মায়ের আদরের প্রতীক্ষা করে,
অসুস্হ শিশুর শিয়রে মা অস্তিরতায় প্রহর গুনে।
যুবা নারী প্রতিক্ষা করে-রবিবাসরীর, একদিন
স্বপ্ন পুরুষ আসবে, সেফালী ফুলের মালা গেঁথে
মিষ্টি হাসিতে ভরিয়ে উজার করে ভালবাসায়,
রঁচিবে বাসর, কাব্য নয়, গল্প নয় শুধু প্রণয় হবে।
স্ত্রী তার স্বামীর আগমনি সময়ের ব্যাকুলতায় উদ্ভ্রান্ত
তেমনি স্বামীর নিউরনে সাইরেন বাজে, ফিরিবে
কখন প্রিয়ার সান্নিধ্যে-ভালবাসার টানে ।
এই সব কাব্যকথা নহে –তা’হলে কি?
প্রতিক্ষার প্রহর –বেলা অবেলায়।
কৃষক ফসল বুনে –পাকা ধানের আশায়
সোনালি ধানের শীষের ঝলকে সে হাসে
কিষানি অপেক্ষায় থাকে নবান্নের উৎসবের ।
বনু হাস হংসীর মিললের আশায়
ডানা নাড়ে জলের ধারে, একটানা।
কোকিলের অপেক্ষা কখন কাকেরা
বাঁধবে বাসা-গাছের ডালে।
পরিজায়ি পাখিরা মেলে ডানা আকাশে
ঈষৎ উষ্ণতায় কাটাতে সময় –এদেশে
শীতের শেষে আবার দেয় পাড়ি
আপন নীড়ে হাজার মাইল দূরে ।
শিকারীরা ওৎপেতে থাকে শিকারের
ডুবুরীরা সাগর তলে দেয় ডুব, ভয়হীন;
রত্ন, মনি মুক্তার খোঁজে,অজানা গভীরে।
এই সব কাব্যকথা নহে –তা’হলে কি?
প্রতিক্ষার প্রহর –বেলা অবেলায়।
নিশাচর রাতের আধারে স্বপ্নের
খোঁজে ফিরে অতিন্দ্রীয় ঘোরে,
দিনের আলোয় সে অন্ধকার দেখে।
উসাইন বোল্ট অলিম্পিকের আসরের
অপেক্ষায় থাকে, নিজের রেকর্ড
নিজেই ভাঙ্গার শপৎ নিয়ে।
সৈনিকেরা আশায় থাকে যুদ্ধ শেষে
ফিরে যেতে, বীরের বেশে আপন দেশে
প্রিয়তমা কিংবা মায়ের বুকে; অপেক্ষায়
থাকা সন্তানের কাছে বীরত্ত্ব গাঁথা শোনাতে।
এই সব কাব্যকথা নহে –তা’হলে কি?
প্রতীক্ষা প্রহর –বেলা অবেলায়।
প্রতীক্ষা প্রহর কাটেনা বুঝি কখনও
কেনানা জন্মেছি বলেই, মৃত্যুর প্রতীক্ষা
আছি আমি, তুমি এবং সে –সবাই যাব
কালান্তরের অন্তরালে নিরন্তর অভিযাত্রায়
যার শুরু আছে কিন্তু শেষ নেই কখনও।
প্রতিক্ষা স্বপ্নচারিনীর মত আসে প্রতিটি
বস্তু-কণায়, প্রাণে অপ্রাণে, এমনি প্রহর
গুনে নদীরা সাগর পানে ধেয়ে চলে
সারা সন্ধ্যা তোর অপেক্ষাতেই কেটে যায়;
গন্তব্যহীন এলোমেলো ভাবনা মন কুটিরে
প্রতীক্ষায় ডুবে থাকা আমার প্রহর ক্লান্ত-
শেষবার তোর রেখে যাওয়া স্মৃতির দুয়ারে।

ল্যাম্পপোস্টের আলো জুড়ে সোডিয়াম দুঃখ;
তুই ফিরবিনা জেনেও রোজ চেনাপথে অপেক্ষা!

পড়ে থাকা কাগজের টুকরো ক্ষতবিক্ষত-
ফড়িং উল্লাসে তুই ভুল খেলায় মেতে আছিস;

রঙ্গিন আলোর মাঝে সাদাকালো প্রতিচ্ছবি-
ফেলে যাওয়া স্মৃতি কখনো মধ্যরাতের ভুল;
জোড়া শালিকের উড়তে উড়তে আকাশের ক্লান্তি
ঝাপসা জীবনের বন্ধনের ছায়া হবিনা জানি তুই।

সাদা কাগজে লিখে যাই নিম ফুল স্বপ্ন কথা;
খুঁজে পাওয়ার আশায় গহীনে সাঁঝের বাতি !!!
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন