বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১২ জানুয়ারী ১৯৯৯
গল্প/কবিতা: ২টি

সমন্বিত স্কোর

৪.১৪

বিচারক স্কোরঃ ২.২২ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৯২ / ৩.০

শীত / ঠাণ্ডা (ডিসেম্বর ২০১৫)

মোট ভোট ১৬ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.১৪ ঘনকুয়াশা

নিশ্চুপ কাব্যধারা
comment ১৩  favorite ২  import_contacts ৫৪০
নুয়ে নুয়ে শুভ্র বস্ত্র লয়ে নেমেছে কুয়াশা রুক্ষ রাস্তা ধরে,,
ক্ষয়ে ক্ষয়ে বেড়েছে প্রকৃতিপীড়ন,থেমে থেমে বদলাচ্ছে বৈরীর রং।
উদ্বাস্তু,সেতো অবহেলিত কবিতা,পথে পথে জীবনের রথে কেবলি স্বপ্ন গড়ে ঢং,,
হয়ে মাইমের প্রতীক,হাঁটি হাঁটি পা করে,কেবলি যৌবনলজ্জ্বা কাঁধে নিয়ে বনেবনে ঘুরে।
--মাইম সেতো নৃত্যের পর নৃত্য,নৃত্যই তার খেলা,,
--জীবনযুদ্ধে শীত কুয়াশা তাতো উদ্বাস্তুর ছেঁড়া কাঁথার ভেলা।



কত শীত কত কুয়াশা,কিঞ্চিৎ নিউমোনিয়া অল্প অ্যাজমা,তবুও প্রান যায় ডরে,,
কত আর বাড়ে,শুধু অসহায় দুটি চোখ রাস্তায় পড়ে ধুঁকে ধুঁকে মরে।
অ্যাজমা সেতো আরেক উদ্বাস্তু,নিরবে সরবে হয় তাদের বন্ধু,,
রাতের পর রাত করে দিয়ে রুদ্ধ,জীবনে আনে হতাশা,করে দেয় অন্ধ।
--শীত মানে আনন্দ?সেতো দেবদেবীর জন্য,,
--যারা অট্টালিকায় করে বাস,গালি দেয়"জঘন্য"।



জঘন্য আহ কত জঘন্য,রাস্তার এই মানুষগুলি কেবলি মৃত্যুর জন্য,,
কে বলে মানুষ তাদের,তারাতো কুকুর পথের,ভদ্রতায় এমনটাই ভাষ্য।
নেই অধিকার,আশা লয়ে বাঁচার,প্রবল হিমে একটুকরা বস্ত্র পাবার,,
উদ্বাস্তু,কঠিন বস্তুর গাত্র তার,কেউ নেই ধরার একটু স্নেহ দেবার।
--তারাওতো সৃষ্টি তার,নিখিল বিশ্বের বিধাতার,,
--চাই বাণী চাই মমতার,তাই কোনো এক উদ্বাস্তুর কুয়াশা ঘুচার।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন