বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৬ নভেম্বর ১৯৯৫
গল্প/কবিতা: ১৬টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

স্বপ্নে আসা সেই মেয়েটি

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

প্রতীক্ষিত ভালোবাসা

আমার আমি অক্টোবর ২০১৬

মিষ্টি মিষ্টি স্বপ্নের ঘৃণ্য পরিণতি

ঘৃণা সেপ্টেম্বর ২০১৬

গল্প - উপলব্ধি (এপ্রিল ২০১৬)

মোট ভোট এক রূপকাহিনীর বিসর্জন

ফাহিম আজমল রেম
comment ৭  favorite ০  import_contacts ১৫৫
শুনতে হয়ত লাগবে খারাপ
বুঝতে তবে লাগবে অভিশাপ
এক নিদারুণ বিসর্জনের গল্পে
করে ফেলেছিলাম কি আমি খুব পাপ।
ঘটনার শুরুটা ছিল স্বাভাবিক
তখন আমার নিশানা ছিল ঠিক,
তীর ছুড়তাম পেশাদার রূপে
আঘাত করে গেল একদিন যে খাপে খাপে।
মেয়েটি ছিল মধ্যবিত্ত সাধারণ
স্বপ্ন কিন্তু ছিল তার অসীম,
আমার সাথে মিলিয়েছিল হাত
জীবনযুদ্ধে যেন সে না খায় হিমশিম।
সাহায্যের হাত তাই বাড়িয়ে দিলাম
আরো দিলাম হৃদয়ের দুকূল ছোয়া,
অনুভবে ছিল সে পরীর মতন
বয়ে যেত আমার শরীরে অনাবিল সব হাওয়া।
এভাবে চলল বেশ কিছুদিন
এগিয়ে যাচ্ছিল আমাদের জীবন নৌকা
হঠাৎ এল এক ঘূর্ণিঝড়,
করে দিল আমাকে খুব যে বোকা।
মরণব্যাধী রোগে ধরল মেয়েটিকে
বাচার যে কোন উপায় নেই,
আমি তবুও ছাড়িনি তার হাত
ভেবেছিলাম মনেপ্রাণে সে তো সুস্থ হবেই।
রাতদিন করে সেবাশুশ্রুষা
ছিলাম তার খুব পাশে,
মেয়েটির পরিবার তখন পড়েছিল ভেঙে
এক তীব্র ভয়ানক পরিহাসে।
তবুও তাদের যুগিয়েছিলাম সাহস
দাড়িয়েছিলাম আমি তাদের পাশে
মেয়েটির সেই চেহারার জোশ
ভাবতাম অসুস্থ চরিত্রটির কাছে বসে বসে।
কি হয়নি সেই দিনগুলোতে
আমাদের ক্ষুদ্র মিষ্টি জীবনটাতে,
খুনসুটি ঝগড়াঝাটি আর সুখ হাসির ভাগাভাগি,
মনে পড়ে যায় বর্তমানের করুণ সময়টাতে।
তার হারানো চুলের খোপা
খুজে দিয়েছিলাম একদিন আমি,
বেধে দিয়েছিলাম যত্ন করে
হয়েছিলাম সম্পর্কটাতে একটু অগ্রগামী
স্মৃতিগুলো যে অবিনাশী
থেকে যায় কিছু ছোটখাট অর্জন,
একদিন মেয়েটিকে দিতে হল চিরবিদায়
কাদছিল ভরা সমুদ্রের জলে মেয়েটির পরিবার পরিজন,
আর চোখের সামনেই হয়ে গেল নিমিষেই
আমাদের এক চরম রূপকাহিনীর বিসর্জন।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন