বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১ ডিসেম্বর ১৯৯৫
গল্প/কবিতা: ৭টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

জ্যোৎস্না রাত

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

তোমারি অপেক্ষায়

ফাল্গুন ফেব্রুয়ারী ২০১৬

শুকনো পাতা

শীত / ঠাণ্ডা ডিসেম্বর ২০১৫

কবিতা - স্বাধীনতা (মার্চ ২০১৬)

মোট ভোট স্বাধীনতা

এ এস এম আব্দুর রোফ
comment ৬  favorite ০  import_contacts ২৪০
এই তো বাবা আজ থেকে ৪৪ টা বছর আগে,

মায়ের বোনের কাছে বিদায় নিয়ে

আমাকে,

ছোট্ট ৭ বছরের বাচ্চাটাকে কোলে নিয়ে

ছোট্ট একটু আলতো চুমুতে বললে

বাবা থাক আমি আসছি।

সেই তো গেলে বাবা আর তো এলে না।

পাশের গ্রামের রহিম চাচা

কাদের যেন নিয়ে এল

পড়নে মেলেট্রি জামা

পায়ে বড় বড় জুতা

আবার হাতে মানুষ মারার অস্ত্র।

বাবা শুনতে পাচ্ছ তুমি?

কি বলব সেই অমানুষদের কথা

তোমার সেই বাবুটিকে

তোমারি হাতে লাগানো বড়ই গাছে,

বাধে রেখে আঘাত করলো শেষে,

খুব লেগেছে আমার বাবা, খুব খুব খুব।।

বুবু আর মাকে ওরা

মুখে আসছে না বাবা ……

মা আর বুবুর চিৎকার এ

চারিদিক যেন খা খা

কেউ আসেনি বাবা বাচাতে আমাদের

কেউ কেউ কেউ না।

চলে যায় ওরা অমানুষের দল

পাশের বাশার ওই মৌলবি চাচা

নিয়ে মোরে ঘরে ঢুকে।

দেখি বাবা,

ঈদে দেয়া তোয়ার মায়ের কাপড়ে

ঝুলে আছে বুবু আর মা।

বাবা শুনতে পাচ্ছ তুমি?

আজ ৪৪ টা বছর পর

৫১ তে আমি আজ ,

চুলগুলো পাক ধরেছে

শক্তি ও কমে গেছে,

তবুও এতটুকু কমেনি

ওই পাষানের দল কে গুলি করে মারার ক্ষোভ

তুমি ও তো তখন ৫৩ তে ছিলে বাবাচ,যুদ্ধে গেছ

দেশের জন্য ,দেশের মানুষের জন্য

আজ দেশ স্বাধীন ,তুমি নেই

নেই জননী মা, আর আদরের বুবু।

বাবা আমাদের রান্নাঘরটা হয়তো এখনো আছে

শুধু নেই বুবুর সাথে ঝগড়া করে

আর মায়ের হাতের দুধ ভাত খাওয়াটা।

বাবা আজ ও মনে পড়ে তোমার আসরের নামাজের পড়,

লুঙ্গি আর পাঙ্গাবি পড়ে

বাজারের সেই মুড়ি মুড়কি নিয়ে আসা,

কত মধুর ছিল দিনগুলো বাবা,

ওরা ওই অমানুষগুলো

ভাল থাকতে দিল না আমাদের ।

সেই যে হারিয়েছি তোমায় ,

হারিয়েছি কৈশোর ,যৌবন

আজ বুড়ো হতে চলেছি

তবুও একটি বার বুকটা ফুলিয়ে বলতে পারি বাবা,

আজ আমি , আমার দেশ , আমরা পেয়েছি

আমাদের স্বাধীনতা।।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন