বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৯ নভেম্বর ১৯৮১
গল্প/কবিতা: ৫টি

তুমি সাথে নেই তাই .

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

অতৃপ্তস্বপ্ন

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

আমাদের প্রিয় আদমজী হাই স্কুল

শিক্ষা / শিক্ষক নভেম্বর ২০১৫

গল্প - প্রেম (ফেব্রুয়ারী ২০১৭)

অলওয়েজ লেট

জাকির হোসেন
comment ০  favorite ০  import_contacts ৩৩
1.
হ্যালো , অধরা তুই কোথায় ?
এক্ষুণি টিএসসিতে চলে আয় | দশ মিনিটের মধ্যে , তাড়াতাড়ি |
অয়ন ভাইয়া , আমি এখন আসতে পারবনা | আমার কাজ আছে |
তোর আবার কাজ কী ? খালি তো খাস আর ঘুমাস |
ভালো হবেনা অয়ন ভাইয়া , আমি শুধু খাই আর ঘুমাই | মনে রেখ আমি কিন্তু ঢাকা ইউনিভার্সিটির ছাত্রী |
ঠিক আছে , তুই পড়াশুনা করিস | তোর মতো ভালো মেয়ে সারা পৃথিবীতে নাই | এখন প্লিজ , একটু তাড়াতাড়ি আয় |
ঠিক আছে আসতে পারি তবে একটা শর্ত আছে |
একটা কেন একশটি শর্ত মানতে রাজি আছি |
একশটি মানতে হবেনা , এখন শুধু একটি মানলেই হবে | আইসক্রিম খাওয়াতে হবে|
ঠিক আছে , একশটি আইসক্রিম খাওয়াবো | তুই জলদি আয় তো |
অধরার বড় ভাই রাতুলের বন্ধু অয়ন | অয়ন আর রাতুল একসংগে বড় হয়েছে | একসংগে লেখাপড়া করেছে | অয়নকে নিজ ছেলের মতো ভালোবাসেন রাতুলের মা - বাবা |

অধরা ক্যাম্পাসেই ছিল তাই আসতে দেরি হলোনা |
অয়ন ভাইয়া , বললে না তো কি জন্য ডেকেছ? আর আমরা কোথায় যাচ্ছি ?
কোথায় যাচ্ছি ? কি জন্য ডেকেছি , সব পরে বলবো | এখন চুপ করে থাক | বেশি কথা বলিস না | নাকি আমার সাথে যেতে তোর সমস্যা আছে ?
সমস্যা ! সে তো প্রশ্নই আসেনা | তবে মাঝে মধ্যে তোমার কাজকর্মে মনে হয় তুমিই একটা বিরাট সমস্যা |
কি বললি ? আমিই একটা সমস্যা ! কান ধর বলছি , কান ধর |

এখানে কান ধরলে সবাই দেখবে বরং তুমি যেখানে নিয়ে যাবে সেখানে গিয়ে ধরবো| তোমার সামনে , অন্য কেউ দেখবে না | শুধু তুমি . .
দেড় ঘণ্টার মধ্যে ওরা পদ্মার চরে গড়ে ওঠা পদ্মা রিসোর্টে গিয়ে পৌঁছালো | এতো সুন্দর জায়গা ! চারদিকে পদ্মার বিস্তৃত জলরাশি | আনন্দে আত্মহারা হয়ে অধরা চিৎকার করে বললো , অয়ন ভাইয়া এই দেখো কান ধরেছি | এমন জায়গায় কান ধরলে কান ধরা সার্থক |
কান ধরতে হবেনা | এখন বল , তোকে কেমন সারপ্রাইজ দিলাম ?
It's a great surprise . You are so sweet .
Only sweet ?
Not only sweet but also rosogolla .
আবার ফাজলামো করা হচ্ছে |
সরি , সরি অয়ন ভাইয়া |
সারাদিন আনন্দ - উচ্ছাসে কাটলো ওদের | কিন্তু যে জন্য অধরাকে আজ এখানে নিয়ে আসা সে কথাটি আজও বলতে পারল না অয়ন |
২.
অয়ন ভাইয়া , আগামীকাল সকালে আমাদের বাসায় একটু আসতে পারবে ?
কেন ?
কাল তোমাকে একটি জায়গায় নিয়ে যাব | ঠিক দশটায় বাসায় চলে আসবে মনে থাকে যেন | তুমি তো আবর অলওয়েজ লেট | লেট লতিফের মতো লেট অয়ন বলেই অধরা হাসলো |
পরদিন ঠিক দশ মিনিট লেটে পৌঁছাল অয়ন |
আজ সারাদিন রিকশায় করে ঘুরে বেড়াব |
রিকশায় করে সারাদিন ঘোরার কি আছে ?
আমার ইচ্ছা হয়েছে তাই | আমার সাথে যেতে তোমার সমস্যা আছে নাকি অন্য কাউকে শিডিউল দিয়ে এসেছ ?
সেই কপাল কি আমার আছে ? সেই কপাল থাকলে এখন শুধু শুধু সময়টা নষ্ট করি | অধরাকে খেপানোর জন্য বললো অয়ন |
আমার সাথে কোথাও গেলে তোমার সময় নষ্ট হয় ? ঠিক আছে , তোমাকে আমার লাগবে না | তুমি রিকশা থেকে নামো |
রাগ করছিস কেন ? আমি তো দুষ্টমি করে বললাম | তোর মতো সুন্দরীর পাশে বসলে নিজেকে ধন্য মনে হয় |

ধন্য না কচু | আমার মতো সুন্দরী মেয়ের পাশে বসে রিকশায় ঘুরছ একটু স্মার্ট হয়ে আসবে তো | গাল ভরা খোঁচা দাড়ি | কতদিন হয়েছে শেভ করোনি | আয়নায় নিজের চেহারা দেখো ?
অয়ন মনে মনে ভাবলো , আসলেই তো অধরা কত সুন্দরী একটি মেয়ে | অয়ন কতবার চেষ্টা করেছে অধরাকে মনের কথা খুলে বলতে , পারেনি | যখনই নিজের মনের গহিনে অনেক দিনের জমানো কথাটি বলতে যাবে তখনই কি যেন হয় | সবকিছু গুবলেট হয়ে যায় | আজ অয়ন বলবেই | আজ অধরাকে ওর মনের কথা অবশ্যই বলবে |
কি অয়ন ভাইয়া , একেবারে পান্তা ভাত হয়ে গেলে দেখি !
সেটি আবার কি ? মানুষ কি কখনো পান্তা ভাত হয় ?
হয় , হয় | তোমার মতো মানুষ মাঝে মধ্যে পান্তাভাত হয় | তবে তোমার মনটা খুব ভালো | এজন্যই তোমাকে আমি পছন্দ করি |
তোমাকে আমি পছন্দ করি কথাটি যেন অয়নের মনে আনন্দের বার্তা বয়ে দিলো . . তাহলে অধরাও কি অয়নকে ভালোবাসে ! ভাবতেই অদ্ভুত রকমের ভালোলাগায় শিহরিত হলো অয়ন |
এই রিকশাওয়ালা ভাই , রাখো | অধরার কথায় সংবিৎ ফিরে এলো অয়নের |
ওরা একটি কফিশপে ঢুকলো | কোণার দিকের টেবিলে একটি ছেলে বসা ছিল |
অধরা সরাসরি সে দিকটায় গেল | ছেলেটির দিকে তাকিয়ে বললো , দেখোনা অয়ন ভাইয়ার জন্য দেরি হয়ে গেল | সব কিছুতেই লেট |
অয়নের দিকে ছেলেটি হাত বাড়িয়ে দিলো | ভদ্রতার খাতিরে অয়নও নিজ হাত বাড়ালো |
অয়ন ভাইয়া , ও হচ্ছে সোহান | আমাদের ডিপার্টমেন্টেই মাস্টার্সে পড়ে | আমরা দুজন দুজনকে ভালোবাসি| আমাদের ব্যাপারটা তোমাকেই প্রথম বললাম | আব্বু-আম্মুকে তোমাকেই ম্যানেজ করাতে হবে | একমাত্র তুমিই পারবে |
কাঁপা কণ্ঠে অধরাকে আশ্বস্ত করলো অয়ন | আর মনে মনে ভাবলো , অধরা তুই সত্যিই বলেছিস , আমি অলওয়েজ লেট |
ওদেরকে Congratulation বলে বাহিরের দিকে পা বাড়ায় অয়ন। পেছন হতে অধরা অয়নের বাম হাতটি ধরে টান দিয়ে বলল, ’ বুদ্ধু , তুমি কি আমাকে কখনো তোমার মনের কথাটি বলবেনা?’
অয়ন হতভম্ব হয়ে গেল। খানিকক্ষণ অহনার দিকে কিছু বলার আগেই অহনা বলল, ’ সোহান আমার খুব ভালো বন্ধু বৈ আর কিছু না। ওর পরামর্শেই তো আজকের নাটকটি করলাম । জানি, তুমি এখনো কিছুই বলবে না কারণ তুমি তো অলওয়েজ লেট। তাইতো আমিই তোমাকে বলে ফেললাম, ও I Love You.
কাঁপা কণ্ঠে অয়ন বললো , অধরা তুই সত্যইি বলছেসি , আমি অলওয়জে লটে ।









আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন