বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৩ নভেম্বর ১৯৭৫
গল্প/কবিতা: ৩৮টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৯

বিচারক স্কোরঃ ২.৭৩ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.১৭ / ৩.০

অধরা সৌরভ

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

স্বপ্নে দেখা বিভীষিকা

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

স্বপ্নের সিঁড়ি ভেঙে...

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

শীত / ঠাণ্ডা (ডিসেম্বর ২০১৫)

মোট ভোট ৪৭ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৯ কুয়াশার চাদর সরিয়ে

ফাহমিদা বারী
comment ৩১  favorite ৫  import_contacts ১,১৯৫
হিম মাখা কাক ভোরে সোনালি আবছায়া অস্পষ্টতা;
ঘুমভাঙ্গা চোখে চেয়ে থাকে নিঝুম প্রহর, শিশিরের টুপটাপ খসে পড়া।
খেজুর রসের গন্ধে মাতাল চিরচেনা সেই পথে বহুদিন বাদে ফের দেখা;
লাগামহীন সময়ের ঘোড়ার অবাধ্য জিনে মুষ্টিবদ্ধ দু’হাত।
তবুও দু’হাতের ফোকর গলে বেরিয়ে এসেছে অনেকটা সময়।
কুয়াশার মাদকতা পিছ ছাড়েনা যদিও,
দূর পথে ঘোর লাগে অচেনার, থমকে চাওয়া পেছন ফিরে...
কে যায়? ঐ যে ঐ?
পথের ক্লান্তিতে ভুল দেখা বুঝি,
শাল জড়ানো চেনা উষ্ণতার মাঝে অচেনা প্রতিবিম্বের মরিচীকা।
এই পথেই কত শত ক্লান্ত প্রহর, সকাল-সাঁঝে ধেয়ে চলা--
বিলের জলে ডুবসাঁতার,
শাপলা মুকুট মাথায় তুলে রাজকণ্যা সেজে বসা, কল্পিত কোন এক আরাধ্য নগরীর।
কখনোবা নিকোনো উঠোনে পা ছড়িয়ে বসা শীতের দুপুরে,
ওমের আদর চিপে চিপে ছিবড়ে করে দেওয়া সূর্যটাকে বিদায় দিয়ে
ঝুপ করে নেমে আসা সন্ধ্যের কাছে গল্প শোনা।
চেনা চেনা মুখগুলো হারিয়ে গেছে কতদূরে...
কেমন ছিল মার মুখখানা? কতদিন ভেবেছি মনে মনে...
কল্পনায় ছুঁয়ে দিয়েছি কত
মুখের চারপাশে জুড়ে থাকা চেনা চেনা রেখাগুলো।
আঁচলের খুব প্রিয় গন্ধটাকে গায়ে মেখে ‘মা’ বলে ছুটে যাইনি কতদিন
উদাত্ত দু’বাহুর আলিঙ্গনে।
....................................
আমার কিছু মুহূর্তের অসতর্ক প্রলোভনেই
প্রতিচ্ছায়া হেঁটে যায় অনেকটা পথ, গন্তব্যের কাছাকাছি।
দূর থেকে ঢুকতে দেখি চেনা দুয়ারে।
বুকের মাঝে তীব্র গুঞ্জরণে শোরগোল লেগে যায় যেন;
এত কাছে দাঁড়িয়ে তবু...ছোঁয়া যায়না কেন হাত বাড়ালেই!
সব দ্বিধা ঝেড়ে ফেলে এগিয়ে যাই দৃপ্ত পায়ে,
এক ঝটকায় সরিয়ে ফেলি সময়ের আলগা নিকাব।
নিমেষেই হারিয়ে যায় সবকিছু...
সাদা কালো ক্যানভাসে আবারো বিমূর্ত রঙিন বর্তমান।
রঙিন, তবু বিবর্ণ...হিমশীতল...।

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন