বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৩১ মে ১৯৭১
গল্প/কবিতা: ৪টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

রম্য রচনা (জুলাই ২০১৪)

মোট ভোট ধনেশ পাখির ঠোঠে চুমু খায় স্বর্গের দূত

খায়রুজ্জামান সাদেক
comment ৬  favorite ০  import_contacts ৪৭৪
ধনেশ পাখির ঠোঠে চুমু খায় স্বর্গের দূত
পরমহংস স্বর্গ ছেড়ে আবারো এসেছেন লোকালয়ে
মৎস্য ভূক মানুষের কার্বণ ইমিশন তাকে আটকে দেয় চৌহাট্রার মোড়ে
সহযোদ্ধারা গেলেন কই? ক্লেদাক্ত নাগরিক ভীড়ে উড়ে দ্বৈপায়ন চিল
ঠাঠ্ঠা নয় একে একে মুঠোফোন বেঝে উঠলে ধনেশ পাখি ও ডাকে
পরমহংস একটু ক্রোধান্নিতো হলে প্রটোকল ঠিক করে আসেন বিবেকানন্দ
যিনি এতোদিন আনন্দ মঠে ব্যস্ত ছিলেন, তারতো ব্যস্ত থাকার কথা- রাজ্যের কাজ
তবুও নাগরিক সভায় এসেছেন তিনি- দিবেন ভাষন
বিষয় এবার সুশাসন।

ধনেশ পাখির আছে আলাদা জগৎ। বিশ্বব্যাংক যে টাকা লগ্নি করে তাতে ছন্নছাড়া চিল কতোটুক পায়।
উচু ভবনগুলো দেখিয়ে বিবেকানন্দ বোঝাতে চেষ্টাকরেন পদ্মাসেতু কেনো হলোনা।
স্বর্গের দূতেরা ধনেশ পাখিকে দেখিয়ে দেয় কিভাবে মাৎসন্যায় কার্যকর হয়।
তার জগৎ আলাদা, সে একা একা অনেক কিছু পারে যদিও তার সহচর কম নয়-
বিবেকানন্দ বলতে থাকেন।

গরমে ঘেমে উঠে সাংবাদিক বুদ্ধিজীবিরা তার ফুটোনোট নেয়। আগামিকাল এগুলো পত্রিকায় যাবে, টিভিতে আলোচনায় দফারফা হবে । যার যার অবস্হানগতো দিক থেকে মূল্যায়ন দিতে হবে।

তৃতীয় বিশ্বে মুদ্রাস্ফিতি ধনেশ পাখির ঠোঠে লাগে না
ধনেশ পাখি কোথাও ঠোঠ বসালে এটা অনেকটা কুঠারাঘাতের মতো লাগে
বিবেকানন্দ বলতে থাকেন টুইন টাওয়ার ধ্বসে পড়ার ঘটনায় কিভাবে বিন লাদেন ঢুকলো
আরবের সাথে প্রেম এবং পরকিয়ার হালচাল ইতিমধ্যে আপনারা লক্ষ্য করেছেন।
সংঘাত অনিবার্য খেলতে হলে পরকিয়ায় পাকা হতে হয়। ধনেশের লম্বা ঠোঠ দেখলে আপনারা বুঝতে পারবেন। অতি কমমূল্যে চায়নায় তৈরি ধনেশের কিছু মডেল নেড়ে চেড়ে শুষ্ক কাঠ গলাটাকে ভেজাবার জন্য তার চোখ পড়ে সামনে রাখা পানির গ্লাসে।

ধনেশ পাখির ঠোঠে চুমু খায় স্বর্গের দূত
পরমহংস কি শুনছেন ?
করতালির ভিতর থেকে প্রশ্নবান আসতে থাকে
কেউ একজন বলে একটু হলমার্ক নিয়ে বলেন
কুইক রেনটাল বিষয়ে জানতে চাই
বিবেকানন্দ এড়িয়ে যেতে পারেন যদিও ধনেশ পাখির চোখ তার দিকে আছে
তিনি বলতে থাকেন সুশাসনটা নিজের। এটা নিজেকে করতে হবে। ধার দেনায় সুশাসন হয়না।
বালখিল্য মূল্যবোদ মৌলবাদকে উস্কানি দেয় । আপনারা নিজেরটা ঠিক করেন, হেফাজত হেফাজতে থাকবে। বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট এড়িয়ে গেলে হবো না উন্নয়ন অর্থনীতিতে সুশাসনের বিকল্প নেই।
ধনেশ পাখিরা জেগে ঘুমায়না। এক্ষেত্র ল্যাটিন আমেরিকা আপনারা ফলো করতে পারেন। কাছে থেকে এরা ধনেশ পাখির ঠোঠ স্পর্শ করেনা।

ধধি মিষ্টান্ন খেতে হলে খামারায়নের বিকল্প নেই। গাভীদের উলানে এমনে দুধ ফলবেনা। বিবেকানন্দ বলতে থাকেন, রাজনীতি আমার বিষয় না তবে সুশাসনের জন্য ওসমান- হাজারীদের আপনাকে থামাতে হবে।
জীবন আগে যদি ভাগে থাকে সুশাসন
স্বর্গের দূত যাই বলুক ধনেশ পাখিও মাটিতে চুমু খাবে
গণেশের নামে তপোবনে গাভীদের উলনে দুধের নহর বইবে
সুশাসন পুষ্টিতে ধনেশের প্রটোকল ফিরিয়ে দেবে যুগপৎ
আমরা শুধু ধনেশের ডানা ঝাপটানো দেখবো –যতোই চুমু খাক স্বর্গের দূত।
পরমহংস গেলেন ফিরে। বিজলি চমকালো কুইক রেনটালে।




আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • খায়রুজ্জামান  সাদেক
    খায়রুজ্জামান সাদেক রম্য কবিতা এর আগে কখনো লিখিনী, বিষয় বিচারে কবিতায় রম্যরস ফুটিয়ে তোলা বেশ কঠিন। কবিতায় প্রেম ভালোবাসা, দ্রোহ, রোষাগ্নী ইত্যাদি বলা যায়। বলা যায় কারণ, অকারণ মাথা-ব্যাথার ব্যাকরণ-ও। সেই অভ্যাস থেকে যেটুকু হয়, একটু চেষ্টা করি- তা হয়তো নিজের কাছে নিজের কবিতা হ...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ১০ জুলাই, ২০১৪
  • biplobi biplob
    biplobi biplob Sociology politics Economic ar sad eak satha palam, shomalocho na sho. Darun laglo onuvuti tuku. W/c
    প্রত্যুত্তর . ১৫ জুলাই, ২০১৪
  • আল  ইমরান
    আল ইমরান A nice poem indeed
    প্রত্যুত্তর . ২০ আগস্ট, ২০১৪