বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৪ ফেব্রুয়ারী ১৯৮৯
গল্প/কবিতা: ২টি

রম্য রচনা (জুলাই ২০১৪)

স্বপ্ন ঘুঁড়ি

মোঃনাজমুল হোসেন বাবু
comment ৫  favorite ০  import_contacts ৪৭৪
উড়ন্ত ঘুড়ির যখন সুতা কেটে যাই তখন ঘুড়ির ছন্দ হারিয়ে যাই, সুতই কাঁটা ঘুঁড়ি দেখতে বড় অসহায় মনে হয় । তাল বাতাসে ভাসিয়া হেলিয়া দুলিয়া
চলে ঘুঁড়ি মাঠ ঘাট ছাড়িয়ে গ্রাম গঞ্জ পেরিয়ে অজানা তার গন্তব্য ইস্থল। সুত কাঁটা ঘুঁড়ি শেষ ঠিকানা তার উচু কোনও গাছের মগডালে নয়তো সবুজ কোনও খোলা মাঠে নয় তো নদীর জলে ।
সৃতি সরুপ সঙ্গে তার নাটাই
থেকে নিয়ে আসা আংশিক কিছু সুতা ।

বাল্য কালে এমনো এক সময় ছিল যখন আমি খুব
ঘুড়ি উঁড়াই তাম । কত বার
যে কেঁটে গেছে আমার ঘুঁড়ি । ঘুঁড়ি লক্ষ
করে ছুটিয়া গিয়াছি উদ্দাম
গতিতে ঘুঁড়ি ফিরে পাবার আসাই। কিন্তু
প্রতিবার কেউ না কেউএসে ধরে নিয়ে ছে আমার ঘুঁড়ি ।
তাই আবার মোল্লার কাছ থেকে 2 টাকাই
একটি ঘুঁড়ি কিনিয়া আবার আকাশে উড়াই তাম ।

তবে এখন আর মোল্লার ঘুঁড়ি উঁড়াই না ।
নিজের স্বপ্ন ঘুঁড়ি উঁড়াই । কেটে যাই স্বপ্ন
ঘুঁড়ি কিন্তু স্বপ্ন ঘুঁড়ির পিছে পিছে ছুঁটে যাই না ।
যেতে দি যাক না যে খানে খুশি যে পুড়ুক
। আমি আবার নতুন করে স্বপ্ন
দেখিবো ,বাঁধিয়া নাটাই সুতাই উঁড়াই
বো আকাশে স্বপ্ন ঘুঁড়ি । কিন্তু কি জানেন? আমি না শুখে নেই ,বুকের মাঝে চিনচিন ব্যাথা,কেঁটে যাচ্ছে প্রতি রাতে আমার স্বপ্ন ঘুঁড়ি তবুও আমি রঙ্গীন মানুষ ,রাঙ্গা মনে রং লাগিয়া সংঙ্গের ঢংঙ্গে পইড়া থাকি একলা মাতিয়া ।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন