বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
গল্প/কবিতা: ১৯টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৭৯

বিচারক স্কোরঃ ৩.১৫ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৬৪ / ৩.০

প্রকৃতির আলিঙ্গনে স্নিগ্ধ হোক প্রেম!

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

অন্তহীন জ্বালা

আমার স্বপ্ন ডিসেম্বর ২০১৬

গর্ভধারিণী কাঁদে আজ গর্ভের যাতনায়!

আমার আমি অক্টোবর ২০১৬

কবিতা - তীব্রতা (আগস্ট ২০১৬)

মোট ভোট ৩০ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৭৯ ঈশ্বর, অবরুদ্ধ নগরী'র দ্বার খুলে দাও!

নাসরিন চৌধুরী
comment ২৮  favorite ২  import_contacts ৫৪৭
নগরী'র শরীর বেয়ে উপচে পড়ছে পাপ
বোধের মুক্তোদানাগুলো নিশ্চুপ, নির্বাক
ঈশ্বর তুমি কি দেখোনা? তুমি কি দেখোনা,
মৃত্তিকা কেঁপে ওঠে আজ কেমন পাপের তীব্রতায়!

যুবতীর শরীরে লেগে থাকে অযাচিত বীর্যের দাগ
উপেক্ষায় কুঁকড়ে যায় অবাঞ্ছিত নবজাতক
অযত্নে পড়ে থাকে কিশোরের রক্তমাখা লালজামা
বিবাগী যুবকেরা ছুঁড়ে ফেলে দেয় রাশি রাশি সবুজ স্বপ্নের হলফনামা!
এসব আবর্জনার ভীড়ে নগরী'র স্বাভাবিক আবর্জনাগুলো
কেমন জানি মিইয়ে যায়!

ঈশ্বর, অবরুদ্ধ নগরীর দ্বার খুলে দাও
অপ্রিয় মৃত্যুর ছোবলে নীল হতে চায়না আর কোন নিষ্পাপ আত্মা!
শুদ্ধতার বীজ বুনে দিয়ে যাও ক্ষয়ে যাওয়া নগরী'র বুকে
মানব মানবী'র প্রেমের প্রদীপ ছুঁয়ে দিক নগরীর যত অন্ধকার
পাথুরে নদী'র জল বেয়ে নেমে পড়ুক কোন স্নিগ্ধ জলপরী
প্রিয় মৃত্যু নিবিড় করে কাছে টানুক-
স্বাভাবিক মৃত্যু'র আক্ষেপ করেছিলো যারা!
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন