বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৬ জানুয়ারী ১৯৭৩
গল্প/কবিতা: ৪৯টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৩

বিচারক স্কোরঃ ২.৪৫ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৮৫ / ৩.০

দূর আকাশের তারায়

ভালোবাসা / ফাল্গুন ফেব্রুয়ারী ২০১৫

এখন অনন্ত সময় জীবনের প্রত্যয়ে

প্রত্যয় অক্টোবর ২০১৪

সবাই চলে যাবে ...

অসহায়ত্ব আগস্ট ২০১৪

২১শে ফেব্রুয়ারী (ফেব্রুয়ারী ২০১২)

মোট ভোট ৭৪ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৩ সুপ্রভ একুশের চেতনা

মিজানুর রহমান রানা
comment ৪৭  favorite ৩  import_contacts ৯৩৬
আমি আপনাকেই বলছি, হে কর্ণধার!
কুম্ভকর্ণের ঘুমে এখনো কেনো অচেতন সারাবেলা?

এখনো আইনের অস্ত্র ডাকাতের অস্ত্রের মতো গর্জে ওঠে নির্বিচারে
এখনো পটুয়াখালির মুন্নী, বাগাতীপাড়ার খুশি যৌন হয়রানির মরণ ছোবলে
এখনো সীমান্তে ফেলানির নির্যাতিত মৃতদেহ আছে ঝুলে
চারপাশে ক্ষুধার্তের হাহাকার নিত্যদিন
বেকারত্বের নির্মম পরিহাস সকাল-বিকাল- জ্বলে ওঠে দুর্বিসহ তুণ

আমরা প্রতিদিনই জ্ঞানগর্ভ সুরে শুনি :
সুপ্রভ একুশের চেতনার কথা, স্বাধীনতার কথা
দেশরত্না র কথা, আইনের কথা
দেশপ্রেমের কথা, মানুষে মানুষে ভালোবাসার কথা

অথচ দেশের কর্ণধারগণ কর্ণমাঝে তুলো দিয়ে
আইন গড়ি, আইন ভাঙ্গি
মিছে ভালোবাসা-দেশপ্রেমের অভিনয় করি
একুশের চেতনার বিপরীত মের“তে অবস্থান করি
স্বাধীনতা-দেশরত্না- দেশপ্রেমের জন্যে ভাবি না ধর্মাধিকারী

কাঁদে ভুখা-নাঙ্গা নিগৃহীত পানসে মানুষের দল
কাঁদে নির্যাতিত লাঞ্ছিত বঞ্চিত সখিনারা- কালে কালে
অন্যায় অত্যাচার হাসে খিলখিল করে
হাসে বিবেকশূন্য আততায়ী
শেয়ার মার্কেটে ধ্বস নামায়
মাথায় বাজ পড়ে হাজার হাজার প্রবঞ্চিত মানুষের
কোন ঘুমে আচ্ছন্ন হে দেশের কর্ণধার?

জনগণ যে দেশে নির্ঘুম রাত কাটায়
সেদেশের ভুখা-বঞ্চিত মানুষ অবশেষে কোনো আইন মানে না
ভাঙতে চায় শৃক্সখল-বন্ধন চিরদিনের যতো
জেগে ওঠে ওরা ঘুমন্ত— আগ্নেয়গিরির মতো

বিষ্ফোরণ ঘটায় অসাম্য চারদিকে দিকবিদিক
তখন আপনার চিরনিদ্রা টুটে যাবে হে শাসক
সময় থাকতে তাই খুঁজে নিন সচেতন সুন্দর পথ
বেছে নিন সত্যিকারের একুশের চেতনা-ঊষসী
তবেই শান্তিময় পৃথিবী, ছন্দোবদ্ধ হবে দেশবাসী।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন